বাঁচার-ইচ্ছে

বাঁচার ইচ্ছে

পাশের বাড়ির মেয়েটির খোলা গলায় গান শুনে লিখতে বসেও মন বিষন্ন হয়ে গেল রনিতার। মনে হলো ‌এ তো একটি  দারুন মাধ্যম, যার মধ্য দিয়ে জীবনের ওঠাপড়া, ঝড়-ঝাপটা, রাগ, অভিমান, সবকিছু প্রকৃতির মুক্ত ক্যানভাসে আছেড়ে ফেলা যায়। রক্ষণশীল পরিবারের নানারকম বিধি নিষেধ উপেক্ষা করতে পারেনি বলে তার নিজস্ব ইচ্ছেগুলো পূরন হয়ে ওঠেনি। অথচ তার একলা জীবন যুদ্ধে সেই পরিবারের কেউ তার পাশে এসে দাঁড়ায়নি। এখন  সে সম্পূর্ণ একলা,নিঃসঙ্গ।

   কয়েক দিন ধরে তার মনের মধ্যেকার জমাট লাভা হঠাৎ গলিত হয়ে বাইরে বেরিয়ে এলো। সে দু চোখের নিচ থেকে দুই হাত দিয়ে তাকে মুছে ঈষৎ হাসিমুখে সিদ্ধান্ত নিল সে নতুন করে বাঁচবে। ফলস্বরূপ সে একটা গানের স্কুল খোলার তোড়জোড় শুরু করলো।

0 0 votes
Writing Rating
Share This
Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on telegram
Share on email
Share on linkedin
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
লজের একপাশের  ছোট্ট পার্কটার রেলিং এর পাশে টুকটুকে লাল গোলাপ টার দিকে একদৃষ্টে তাকিয়ে আছে মানালি। গোলাপটা আজ তার কাছে  ঠিক প্রেমের নয় -সম্মানের, …
পূর্ণিমার চাঁদ টার দিকে তাকিয়ে আনমনে কথাগুলো শুনছিল শ্রেয়া; কাকিমা তারই সামনে দাঁড়িয়ে তাকেই পরোক্ষভাবে বলছে লোকের মেয়ের তো কোনো যোগ্যতাই নেই দুটো পয়সা …
Read More
লজের একপাশের  ছোট্ট পার্কটার রেলিং এর পাশে টুকটুকে লাল গোলাপ টার দিকে একদৃষ্টে তাকিয়ে আছে মানালি। গোলাপটা আজ তার কাছে  ঠিক প্রেমের নয় -সম্মানের, …
পূর্ণিমার চাঁদ টার দিকে তাকিয়ে আনমনে কথাগুলো শুনছিল শ্রেয়া; কাকিমা তারই সামনে দাঁড়িয়ে তাকেই পরোক্ষভাবে বলছে লোকের মেয়ের তো কোনো যোগ্যতাই নেই দুটো পয়সা …